rss

রবিবার, ১৪ ফেব্রুয়ারী, ২০১০

একটি উত্তরাধুনিক ছোট গল্প

১.
উচ্চ মাধ্যমিকের রেজাল্ট জানার জন্য ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েব চষে বেড়াই। টানা কয়েক ঘন্টার চেষ্টার পর ঠিকুজি মিলে। অবশ্য ভাগ্যের সহায়তাও ছিলো তাতে! দৈবচয়ন পদ্ধতিতে ডাটাবেজ চেক করতে করতে কয়েক লক্ষ এন্ট্রির মধ্যে এক সময় মিলে যায়। আশানুরূপ রেজাল্টই। জিপিএ-৫।


২.
ফাঁকে ফাঁকে খোমাখাতায় চোখ রাখি। নাম দিয়ে সার্চ দিই; শহরের নামে দিই, কলেজের নামে দিই। নাহ্ ! মিলে না। তবুও হাল ছাড়া ছাড়ি নাই। নামের ইংরেজী বানানের সম্ভাব্য সব বিন্যাস ট্রাই করে দেখি। মিলে না। হয়তো এখনো নিবন্ধন করে নাই! তবু চেষ্টা থামে না। কয়েক মাস পর অবশেষে সফলতা। বানানে সামান্য পরিবর্তন করা একটা নাম দেখি। ফ্রেন্ডলিস্ট দেখি। সন্দেহ নেই। সেই!

৩.
তারপর ভূয়া পরিচয় তৈরি। ফ্রেন্ডলিস্ট ধরে ধরে ফ্রেন্ডের ফ্রেন্ডকে রিকোয়েস্ট পাঠানো। কেউ গ্রহণ করে, কেউ করেনা। এক সময় ফ্রেন্ডলিস্টের উল্লেখযোগ্য সংখ্যক ফ্রেন্ড হয়ে যায়। এবার বোধহয় তাকে পাঠানো যায়! অতপর: রিকোয়েস্ট। এবং সন্দেহের অবকাশ তৈরি না করেই অ্যাপ্রুভ!

৪.
নকল পরিচয়ের নকল বন্ধুত্ব চলে। নেটে ঢুকলেই লগইন করে খবর নেয়া। নতুন কোন কলেজে ভর্তি হলো, কী খাচ্ছে দাচ্ছে, নতুন করে কার সাথে ঘুরে বেড়াচ্ছে। সব ঠিক ঠিক খবর পাই। স্ট্যাটাসে স্ট্যাটাসে, নোটে, অ্যালবামে তথ্য হালনাগাদ হয়। কষ্টগুলোও হালনাগাদ হয়।

৫.
ধুর বাল! কত কী করার আছে জীবনে!

ফেইসবুকে যোগ করুন

2 টি মন্তব্য:

কাদের বলেছেন...

কেন এই কষ্ট করে কষ্ট কেনা ?

মুকুল on ১৫ মার্চ, ২০১০ ১২:০১ PM বলেছেন...

কষ্ট পেতে ভালোবাসি বোধহয়!

সাম্প্রতিক লেখা

সাম্প্রতিক মন্তব্য